আজকের দিন তারিখ ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সারাদেশ সাভারে ২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে লেবু

সাভারে ২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে লেবু


পোস্ট করেছেন: Dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: মে ৩১, ২০২১ , ১২:১৩ অপরাহ্ণ | বিভাগ: সারাদেশ


সাভার প্রতিনিধি : তরমুজ নিয়ে গত কয়েক সপ্তাহ কারসাজি চলছিলো বিভিন্ন হাটে-বাজারে। তরমুজ কেজিতে বিক্রির কারণে নানা আলোচনা সমালোচনা হয়ে শেষমেশ তরমুজ বাজার বর্তমানে ঠিক হয়েছে। তরমুজের পর এবার লেবুর কপালে শনি লেগেছে।
আমরা জানি মূলত লেবু বিক্রি হয় হালি বা পিস হিসেবে। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, এবার লেবু বিক্রি হচ্ছে কেজি হিসেবে। এর কারণ হিসেবে বিক্রেতারা জানিয়েছেন লেবুর দাম খুবই কম, আর এটির চাহিদা থাকলেও উৎপাদন ভালো। তাই বস্তায় বস্তায় লেবু কিনে খুচরাভাবে বিক্রি করতে কেজিকেই বেছে নিয়েছেন বিক্রেতারা। তরমুজ কেজিতে বিক্রির কারণ ছিলো উৎপাদন কম ও বাজার সিন্ডিকেট। কিন্তু লেবু কেজিতে বিক্রির পেছনে বাজার সিন্ডিকেটের কোনো হাত নেই। বরং লেবুর উৎপাদন বেশির কারণে হালির জায়গায় কেজিতে বিক্রি হচ্ছে বলে জানান তারা।
শনিবার (২৯ মে) বিকেলে আশুলিয়ার নরসিংহপুরের উত্তর গোমাইল এলাকায় ভ্যান দিয়ে লেবু বোঝোই করে বিক্রি করতে দেখা গেছে আবু বক্কর সিদ্দিক নামের এক খুচরা বিক্রেতাকে। আবু বক্কর সিদ্দিক বিভিন্ন সড়ক দিয়ে ভ্যানে করে হাঁক-ডাক দিয়ে কেজি দরে লেবু বিক্রি করেন। ক্রেতা সমাগম করতে তিনি বলছেন, লেবুর কেজি ২৫। হালির দিন শেষ। আসেন নিয়ে যান। মাত্র ২৫ টাকা! ২৫ টাকা!। তার এমন হাঁক-ডাক শুনে গৃহবধূসহ অনেকেই আসেন লেবু কিনতে। হালির তুলনায় কেজিতে লেবু বেশি হওয়ায় লেবু কিনতে তাকে ঘিরে ধরেন ক্রেতারা। ভ্যানটির সামনে গিয়ে কথা হয় আবু বক্কর সিদ্দিকের সঙ্গে। তিনি জানান, রাজশাহী থেকে গত বছর আশুলিয়ায় এসেছেন। এখানে ছয়তলা এলাকায় থেকে ভ্যানে করে সবজি বিক্রি করেন। তবে গত দুই দিন থেকে তিনি তার ভ্যানে করে সবজির বদলে লেবু বিক্রি শুরু করেছেন। তবে হালি হিসেবে নয় লেবু বিক্রি করছেন কেজি দরে। তিনি বলেন, অনেকদিন ধরেই ভ্যানে করে সবজি বিক্রি করি আমি। কিন্তু দুই দিন থেকে লেবু বেচা শুরু করছি। লেবু বস্তায় করে কিনে সেটাকে কেজি দরে মেপে বিক্রি করি।
কেজি দরে বিক্রি করছেন কেন? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, লেবুর বাজার একদম সস্তা। কেজি দরে বিক্রি করলেও আমাদের লস নাই। কারণ বাজারে প্রচুর লেবু। আর কেজিতে লেবু কিনে কাস্টমাররাও লাভবান হচ্ছেন। সেই ভ্যান থেকে মিতালী নামে এক গৃহবধূ এক কেজি লেবু কিনেছেন। তিনি বলেন, আমরা তো সব সময় লেবু কিনতাম হালি হিসেবে। এক হালি ২০ টাকা বা ১০ টাকা। কিন্তু এবার বাসার পাশে কেজিতে লেবু বিক্রির জন্য ডাকছে সেটা কি আর মিস করা যায়। হালির চেয়ে এভাবে অনেক লাভ। কেজিতে প্রায় ১২-১৫টি করে লেবু পাওয়া যাচ্ছে। বাইপাইল লেবুর আড়তের পাইকার মিজান বলেন, আমরা লেবু কিনে রেখে বেচতে পারি না গুদামে পচন ধরে। এর জন্য বস্তা হিসেবে কম দামেই দিতে হয়। এখন কে কি ভাবে লেবু বিক্রি করছে সেটা আমরা জানি না। তবে লেবুর বাজারে একদম পানির দর।