আজকের দিন তারিখ ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সারাদেশ বরিশালে নববধূকে কু-প্রস্তাব দেয়ায় ব্যবসায়ীকে হত্যা, স্বামীসহ গ্রেফতার-৩

বরিশালে নববধূকে কু-প্রস্তাব দেয়ায় ব্যবসায়ীকে হত্যা, স্বামীসহ গ্রেফতার-৩


পোস্ট করেছেন: Dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩ , ৫:২২ অপরাহ্ণ | বিভাগ: সারাদেশ


বরিশাল প্রতিনিধি : স্ত্রীকে কু-প্রস্তাব প্রদানকারী ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগে ইউসুফ মোল্লা (২০) নামে এক যুবকসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। সেইসাথে খুন হওয়া অপহরণকৃত ব্যবসায়ী শাহিন মোল্লা (৩৮)’র মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত শাহিন মোল্লা বরিশাল নগরীর ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের রুপাতলী এলাকার মোঃ এমদাদুল হক মোল্লার ছেলে। গ্রেফতারকৃতরা হলো বরহুনা জেলার আমতলী থানাধীন কালীপোড়া এলাকার রুহুল আমিন মোল্লার ছেলে ইউসুফ মোল্লা (২০) ও তার দুই সহযোগী পটুয়াখালী কলাপাড়া উপজেলার গন্ডামারি এলাকার রকিবুল ইসলামের ছেলে নাজমুল ইসলাম অমি (১৯) এবং বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার সোনাহার গ্রামের মিজান শিকদারের ছেলে হামিম শিকদার (১৯)। শনিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-৮ বরিশালের অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মাহমুদুল হাসান। লিখিত বক্তব্যে গ্রেফতারকৃতদের স্বীকারোক্তির বরাত দিয়ে তিনি বলেন, একই এলাকায় বসবাসের কারনে খুন হওয়া শাহিন মোল্লার সাথে গ্রেফতারকৃত মোঃ ইউসুফ মোল্লার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিছুদিন পূর্বে ব্যবসায়ী শাহিন মোল্লা গ্রেফতার ইউসুফ মোল্লার সদ্য বিবাহিতা স্ত্রী স্বর্ণা বিশ্বাসকে কু-প্রস্তাব দেয়। এতে ইউসুফ মোল্লা ব্যবসায়ী শাহিনের ওপর ক্ষিপ্ত হয় এবং তাকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ২৭ জানুয়ারি রাত পৌনে ১০ টার দিকে ইউসুফ তার অপর দুই সহেযোগী নাজমুল ও হামিমকে সাথে নিয়ে ব্যবসায়ী শাহিনকে বরিশাল নগরীর রুপাতলী কাঠালতলা তালুকদার হাউজিং প্রথম গলির নাহার ভিলার চতুর্থ তলায় নিয়ে যায়। যেখানে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ইউসুফ মোল্লা ভাড়া থাকতেন। ওই বাসায় নেয়ার পর গ্রেফতারকৃতরা পরস্পর যোগসাজসে ব্যবসায়ী শাহীন মোল্লার গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে এবং তার মরদেহ বস্তাবন্দি করে বাথরুমের ছাদের ওপরে গুম করে রাখে। এছাড়া যাতে কেউ না বুঝতে পারে সেজন্য ফলস ছাদের দরজা আঠা দিয়ে বন্ধ করে দেয়। এদিকে শাহীন মোল্লা নিঁখোজ হওয়ার ঘটনায় তার স্বজন মোঃ আঃ খালেক হাওলাদার ৩০ জানুয়ারি কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন। পাশাপাশি ৩১ জানুয়ারি শাহীন মোল্লার বোন শিরিন আক্তার মুন্নীও র‌্যাবের নিকট একটি অভিযোগ করেন। যার ধারবাহিকতায় র‌্যাব তদন্ত কার্যক্রম শুরু করে। এরইমধ্যে ২ ফেব্রæয়ারি গ্রেফতারকৃতরা ভিকটিমের পরিবারের নিকট মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবী করে। এ অবস্থায় র‍্যাব-৮, সিপিএসসি, বরিশাল কর্তৃক ছায়াতদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেলে আধুনিক তথ্য ও প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে গ্রেফতার কৃতদের অবস্থান সনাক্ত করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে র‍্যাব-৮, সিপিএসসি, বরিশাল ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল সিনিয়র সহকারী পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে শনিবার রাত পৌনে ২ টার দিকে বরিশাল নগরীর এয়ারপোর্ট থানাধীন পশ্চিম ইছাকাঠী, কাশিপুর ও বাকেরগঞ্জ থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যাকারী মূলহোতাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে। পাশপাশি মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশের সহযোগীতায় ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়। তিনি জানান, এ ঘটনার সাথে গ্রেফতারকৃত তিনজন জড়িত ছিলো বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উঠে এসেছে। বাকি কেউ জড়িত থাকলে অধিকতর তদন্তে বেরিয়ে আসবে।