আজকের দিন তারিখ ২১ অক্টোবর, ২০২০, মঙ্গলবার, ৫ কার্তিক, ১৪২৭
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় সারাদেশে করোনাকালীন সময়ে মানবিক সেবা দিচ্ছে ‘গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ’

সারাদেশে করোনাকালীন সময়ে মানবিক সেবা দিচ্ছে ‘গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ’


পোস্ট করেছেন: dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১৭, ২০২০ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জাতীয়


দিনের শেষে ডেস্ক :  গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ দেশের স্বনামধন্য দীনি সংস্থা আঞ্জুমান-এ রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট এর নিয়ন্ত্রণাধীন একটি অরাজনৈতিক ধর্মীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিসেবে ৩৪ বছর যাবৎ মানুষের পাশে রয়েছে। আঞ্জুমান ট্রাস্ট দেশের বিভিন্ন জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ১৫০টিরও বেশী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বাংলাদেশ সরকারের মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত) মাদরাসা, এতিমখানা ও মসজিদ পরিচালনা করে আসছে। তারা একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, আমরা বিশ^াস করি সৃষ্টির সেবা করা ইসলামের একটি অন্যতম মৌলিক কাজ। তাই করোনাকালে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রিয় পরিষদের নির্দেশনা অনুযায়ী ঢাকা মহানগর ও এর আওতাধীন শাখা সমূহ কর্তৃক চলমান মানবিক সেবা কার্যক্রম তথা মৃত দেহের গোসল, কাফন, জানাজার নামাজ, দাফন ও মুমূর্ষ রোগীদের হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা সেবা প্রদানে সহায়তা ও টেলিমেডিসিন সেবা প্রদান বিষয়ে রাজধানীবাসীসহ সমগ্র দেশবাসীকে অবগত করার ইচ্ছায় আজ আপনার আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি। দেশে যখন করোনার সংক্রমন ঠেকাতে গত মার্চ মাসে সরকার কর্তৃক সাধারণ ছুটি ও লকডাউন ঘোষিত হয় তখন হঠাৎ করে বন্ধ হয়ে যাওয়া কর্মহীন পরিবার ও অসহায় দুস্থদের পাশে আমরা থাকার চেষ্টা করেছি। গাউসিয়া কমিটি ঢাকার আওতাধীন ৫১ টি শাখার মাধ্যমে রাজধানী ঢাকাতে আজ অব্দি প্রায় ২০ (বিশ) লক্ষ টাকা মূল্যের খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থের সহায়তা দেয়া হয়েছে, যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। গত ১২ এপ্রিল ২০২০ তারিখ থেকে ০৬ জন ডাক্তারদের মাধ্যমে আমরা টেলিমেডিসিন সেবা চালু করি। বর্তমানে মোট ১২ জন চিকিৎসক নিয়মিত এই সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এতে করে সর্বসাধারণ ঘরে বসে চিকিৎসা সেবা গ্রহন করে উপকৃত হচ্ছে। করোনা কালের সবচেয়ে বড় আতঙ্ক ছিল করোনায় আক্রান্ত মৃতদেহ গোসল, কাফন, জানাজার নামাজ ও দাফনের কাজটি। কারণ বিশ^ময় এই মহামারীতে করোনায় মৃতদের প্রতি যে অবমাননা হচ্ছিল এবং বিশেষ করে করোনায় মৃতদের দাফন না করে পুড়িয়ে ফেলা হলে তা বিজ্ঞান সম্মত হবে, এমন কিছু বিভ্রান্তমূলক তথ্য মুসলমানদের মধ্যে আরো বেশি ভয়-ভীতি তৈরি করছিল। সে সময় গাউছিয়া কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রিয় পরিষদ কর্তৃক আতঙ্কিত মানুষকে স্বস্তি দিয়ে প্রথমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং এরপর প্রশাসনিক অবগতি সাপেক্ষে করোনায় মৃতদেহ দাফনে কেউ এগিয়ে না এলেও গাউসিয়া কমিটির স্বেচ্ছাসেবকগন এ ঝুকিপূর্ন দায়িত্ব পালন করবে বলে ঘোষনা দেয়। সেই ঘোষনার প্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম, সিলেট, হবিগঞ্জ, রংপুর, নীলফামারি, লালমনিরহাট, সৈয়্যদপুর, বগুরা, পাবনা, কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের পাশাপাশি গাউসিয়া কমিটি ঢাকা শাখার তত্ত্বাবধানেও শুরু হয় মৃতদেহ গোসল, কাফন-দাফন কার্যক্রম। আপনারা অবগত আছেন করোনাকালীন সময়ে করোনায় মৃত্যু ছাড়া স্বাভাবিক অন্য কারণে মৃত্যু হলেও কেউ এগিয়ে আসছেনা। আমাদের স্বেচ্ছাসেবকগন সকল ধরনের মৃতদেহের গোসল ও কাফন-দাফন সেবা দিয়ে যাচ্ছে। সর্বশেষ করোনার এই সংকটাপন্ন সময়ে মানবতার সম্মানে আমরা আমাদের সামর্থ্যরে সর্বোচ্চ সেবা দিতে চাই। সে জন্য সরকার ও জনগণের সার্বিক সহযোগীতার মনোভাব অনস্বীকার্য। মহামারী করোনাকালে প্রথম সারির অন্যতম সম্মুখ যুদ্ধা অকুতোভয় সৈনিকের ন্যায় সকল ঝুকি উপেক্ষা করে দেশের মানুষকে সঠিক দিক নির্দেশনা দিতে আপনাদের সাহসী ভুমিকা অনস্বীকার্য। এজন্য গাউছিয়া কমিটি বাংলাদেশ ঢাকার পক্ষ থেকে আপনার সকল সংবাদকর্মী ভাই-বোনদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ। ঢাকার প্রতিটি মানুষের নিকট বিনামূল্যে সেবা প্রদানের ইচ্ছাকে জানান দিতে আপনার একান্ত সহযোগিতা কামনা করছি।