আজকের দিন তারিখ ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
/////হাইলাইটস/////, জাতীয় সব দেশেই দূতাবাস ভবন হবে: প্রধানমন্ত্রী

সব দেশেই দূতাবাস ভবন হবে: প্রধানমন্ত্রী


পোস্ট করেছেন: admin | প্রকাশিত হয়েছে: জুন ৫, ২০১৬ , ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: /////হাইলাইটস/////,জাতীয়


_hasinaকাগজ অনলাইন ডেস্ক: রিয়াদে বাংলাদেশের দূতাবাস ভবন ও রাষ্ট্রদূতের বাসভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বব্যাপী কূটনৈতিক সম্পর্ক থাকা প্রতিটি দেশেই বাংলাদেশ মিশনের নিজস্ব ভবন হবে। খবর বিডি নিউজের।

শনিবার রাতে জেদ্দা কনফারেন্স প্যালেসে এক অনুষ্ঠানে রিয়াদে নতুন এ ভবনের ভিত্তি স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী। দূতাবাসগুলোর এই নিজস্ব ভবন বহির্বিশ্বে ‘স্বাধীন বাংলাদেশের প্রতীক’ হয়ে উঠবে মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, “এভাবে বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের নিজস্ব ভবন হবে।” সম্প্রতি জাপান সফরের সময় টোকিওতে বাংলাদেশ দূতাবাসের নিজস্ব ভবনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

জেদ্দার অনুষ্ঠানে তিনি জানান, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ দূতাবাসের নিজস্ব ভবন তৈরি হয়েছে এবং ভারত ও পাকিস্তানেও কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরবকে মুসলিম উম্মাহর জন্য ‘গুরুত্বপূর্ণ’ হিসেবে বর্ণনা করে বলেন, পরবর্তীতে জেদ্দাতেও বাংলাদেশ মিশনের নিজস্ব ভবন তৈরি করা হবে।

এসময় হজযাত্রীদের সুবিধার জন্য হজ অফিস জেদ্দা থেকে মক্কায় স্থানান্তর করার কথাও তুলে ধরেন তিনি। বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে শুক্রবার সৌদি আরবে পৌঁছে প্রথমেই ওমরাহ পালন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই রাতে জেদ্দা থেকে মক্কায় পৌঁছে হারাম শরীফ সংলগ্ন মক্কা গেস্ট প্যালেসে কিছুক্ষণ অবস্থানের পর প্রধানমন্ত্রী তাওয়াফ শুরু করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রী এএইচ মহমুদ আলী, পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক, সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এবং ওআইসিতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি গোলাম মসীহ, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, প্রেস সচিব ইহসানুল করিমসহ প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী প্রতিনিধি ও বাংলাদেশের সৌদি দূতাবাসের কর্মকর্তারা ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সৌদি বাদশাহ সালমান দায়িত্ব নেওয়ার পর মধ্যপ্রাচ্যের এই তেলসমৃদ্ধ দেশে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর এটাই প্রথম সফর। সর্বশেষ ২০১৩ সালের নভেম্বরে ওমরাহ করতে সৌদি আরবে গিয়েছিলেন শেখ হাসিনা।