আজকের দিন তারিখ ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা লীড শেষ হলো মালয়েশিয়া হেলথ কেয়ার স্বাস্থ্যসেবা মাস

শেষ হলো মালয়েশিয়া হেলথ কেয়ার স্বাস্থ্যসেবা মাস


পোস্ট করেছেন: admin | প্রকাশিত হয়েছে: জুন ১, ২০১৬ , ৩:০১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা,স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা লীড


malaysiaঅনলাইন স্বাস্থ্য ডেস্ক: সফলতার সঙ্গে শেষ হলো ‘মালয়েশিয়া হেলথ কেয়ার-এর স্বাস্থ্যসেবা মাস’ (এমএইচএম ২০১৬)। মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে এ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। মালয়েশিয়া হেলথ কেয়ার ট্রাভেল কাউন্সিল (এমএইচটিসি) মাসব্যাপি এই স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রমের আয়োজন করে।

‘মালয়েশিয়া লাভস ইউ’ থিম নিয়ে ‘এমএইচএম ২০১৬’ মাসব্যাপি ৮টি প্রধান কার্যক্রম সম্পন্ন করে। এতে ছিল ফান রান, ক্যারাভ্যান অ্যাক্টিভেশন, ক্লাব অ্যাক্টিভেশন, মেডিকেল কনসাল্টেশন, ডক্টরস’ এনগেজমেন্ট এবং অটিজম নিয়ে একটি সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন ‘মাই চাইল্ড মাই সুপারহিরো’।

আয়োজন সফল করতে সার্বিক সহযোগিতার জন্য এমএইচটিসি-এর পক্ষ থেকে এয়ারলাইন পার্টনার এয়ার এশিয়া, মালয়েশিয়ান স্বাস্থ্যসেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান কেপিজে হেলথ কেয়ার, ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউট এবং ট্যুরিজম ম্যালয়েশিয়াসহ কিছু কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান যেমন হক গ্রুপ, নিয়েলসন বিডি লি, আইডিএলসি ফিন্যান্স লি, ডেল্টা ব্র্যাক হাউজিং (ডিবিএইচ), প্রাণ-আরএফএল সেন্টার, লংকাবাংলা ফিন্যান্স লি এবং উত্তরা ক্লাবকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

বাংলাদেশ থেকে স্বাস্থ্যসেবা নিতে যাওয়া ভ্রমণকারীরা মালয়েশিয়া হেলথ কেয়ার-এর সর্ববৃহৎ বাজারের প্রতিনিধিত্ব করছে। ২০১৫ সালে মোট ১৪ হাজার ৫০০ এরও বেশি রোগী মালয়েশিয়ার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা, সাধারণ সার্জারি, গ্যাস্ট্রো এনটারোলজি, হৃদরোগ, ফার্টিলিটি এবং ইউরোলোজিসহ বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করেন।

মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রদূত নূর আশিকিন মোহাম্মদ তায়িব বলেন, “বাংলাদেশ এবং মালয়েশিয়ার মধ্যে একটি শক্তিশালী অর্থনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে এবং বাংলাদেশের মানুষের জন্য স্বাস্থ্যসেবা মাসের এ ধরনের বিভিন্ন আয়োজন করে আমরা এ সম্পর্ককে এখন স্বাস্থ্য সেবাখাতে বাড়াতে চাই। আমরা আশা করি, ভবিষ্যতেও এ ধরনের আয়োজন অব্যাহত রাখতে পারবো।”

এমএইচটিসি এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার শেরেনে আজলি বলেন, “বাংলাদেশের জনগণের জন্য আমাদের অনেক অফার রয়েছে। আইএমটিজে থেকে প্রাপ্ত এই অ্যাওয়ার্ডগুলো আমাদের অত্যন্ত সুলভ, সাশ্রয়ী এবং বিশ্বমানের স্বাস্থ্যসেবার স্বীকৃতিস্বরূপ। রোগীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রয়েছে সরকারি কঠোর নীতিমালা।