আজকের দিন তারিখ ২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সারাবিশ্ব, সারাবিশ্ব লীড উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় পত্রিকায় ট্রাম্পের প্রশংসা

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় পত্রিকায় ট্রাম্পের প্রশংসা


পোস্ট করেছেন: admin | প্রকাশিত হয়েছে: জুন ১, ২০১৬ , ৬:২৪ অপরাহ্ণ | বিভাগ: সারাবিশ্ব,সারাবিশ্ব লীড


northকাগজ অনলাইন ডেস্ক: উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদপত্রে যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ট্রাম্পের প্রশংসা করে সম্পাদকীয় প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ট্রাম্পকে ‘বিজ্ঞ রাজনীতিক’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

বিবিসি অনলাইনের এক খবরে বুধবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার ‘ডিপিআরকে টুডে’-তে প্রকাশিত সম্পাদকীয়তে ট্রাম্পকে ‘দূরদৃষ্টিসম্পন্ন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বহুল আলোচিত রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি এক বক্তব্যে বলেন, ‘আমি প্রেসিডেন্ট হলে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে সরাসরি কথা বলব …। দক্ষিণ কোরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করে নেব।’

বিশ্লেষকরা বলছেন, সম্পাদকীয়তে প্রাতিষ্ঠানিক নীতির প্রতিফলন দেখা যায়নি। তবে এতে উত্তর কোরিয়ার চিন্তা ভাবনার প্রকাশ ঘটেছে।

সম্পাদকীয় লেখক হান ইয়ং-মক নিজেকে ‘চীনা উত্তর কোরীয় বিশেষজ্ঞ’ হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। তার মতে, ট্রাম্পের সৈন্য প্রত্যাহারের নীতি উত্তর কোরিয়ার ‘মার্কিনিরা ফিরে যাও’ স্বপ্নকে সত্য প্রমাণিত করবে।

‘মার্কিনিরা ফিরে যাও’ শীর্ষক প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র সেনা মোতায়েন করে রেখেছে দীর্ঘদিন। এ জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ওপর চরম ক্ষ্যাপা উত্তরের নেতারা।

সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে, ‘এই স্লোগান (মার্কিনিরা ফিরে যাও) যদি কোনো দিন সত্য হয়, তাহলে সেদিন কোরিয়ার ঐক্য স্থাপিত হতে পারে।’

এতে আরো বলা হয়েছে, ট্রাম্প বলেছেন, তিনি উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার সংঘর্ষে জড়াতে চান না। তা যদি হয়, তাহলে উত্তর কোরিয়ার জন্য তা হবে সৌভাগ্যের বিষয়।

লেখকের ভাষ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ভোটারদের উচিত ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে প্রত্যাখ্যান করা। কারণ তিনি ‘নির্বোধ’।

উল্লেখ্য, প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার আগেই ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক ও রিপাবলিকান দলের দুই প্রার্থী প্রয়োজনীয়সংখ্যক ডেলিগেটের সমর্থন পেয়ে গেছেন। ফলে তাদের এখন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী বলা যায়।