আজকের দিন তারিখ ৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লাইফ স্টাইল ‘লরাটো’র ২য় বর্ষপূর্তি পালিত

‘লরাটো’র ২য় বর্ষপূর্তি পালিত


পোস্ট করেছেন: dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ৯, ২০২৩ , ৪:৩৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: লাইফ স্টাইল


দিনের শেষে প্রতিবেদক : আন্তর্জাতিক ফ্যাশন ডিজাইনার আফরোজা সিদ্দিকা রোজা প্রতিষ্ঠিত ‘লরাটো’র ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ছিল গতকাল। লরাটোর ২য় প্রতিষ্ঠাতা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে রাজধানীর একটি হোটেলে জাঁকজমক আয়োজনে বর্ষপূর্তি উদযাপন করা হয়। আন্তর্জাতিক ফ্যাশন ডিজাইনার ও লরাটোর চেয়ারম্যান আফরোজা সিদ্দিকা রোজা ও লরাটোর ম্যানেজিং ডিরেক্টর আরিফ ইবনে সাইদ সৌজন্যে অনুষ্ঠানের মধ্যমনি ছিলেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী, উপস্থাপক, সংগীতশিল্পী এবং আবৃত্তিশিল্পী শম্পা রেজা, উত্তরা ইউনিভার্সিটির ভিসি প্রফেসর ফারুক এম মাসুদ, এশিয়ান টিভির চেয়ারম্যান হারুন অর রশীদ (সিআইপি), জনপ্রিয় ফ্যাশন কোরিওগ্রাফার তানজিল জনি, রাকিব বাবু, মেকওভার আর্টিস নিশা, উপস্থাপক ও সংগঠক সোহেল আফসার, স্বদেশ টিভি ও স্বদেশ নিউজ২৪ এর প্রতিষ্ঠাতা আরজে সাইমুর রহমান, ফ্রেন্ডস ভিউ এর প্রতিষ্ঠাতা রবি চৌধুরী, র‌্যাম্প মডেল আসিব জারদারি ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ত্বসহ ফ্যাশন জগতের পরিচিত মুখ। লরাটো’র ২য় বর্ষপূর্তি উদযাপন অনুষ্ঠানে কেক কাটিং, ডিনার, লাইভ গান ও ডিজে নাচের আয়োজন করা হয়। উল্লেখ্য আন্তর্জাতিক ফ্যাশন ডিজাইনার রোজা লরাটো ফ্যাশন হাউজের চেয়ারম্যান।

রোজা লরাটোকে বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশী ব্র্যান্ড হিসেবে এই কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠা করেন এবং লরাটোর বিলাসবহুল ডিজাইনের গাউনের কারণে তারা সারা বিশ্বে সুপরিচিত। গত দুই বছর ধরে লোরাটো বাংলাদেশ ও ইউরোপে ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠার জন্য বাংলাদেশ থেকে কাজ করছে। এই সময়ে, লোরাটো সফলভাবে বাংলাদেশ, যুক্তরাজ্য, ইতালি, পর্তুগাল এবং তুরস্কের মতো দেশে ফ্যাশন শো এবং পণ্য বিক্রয় করেছে। ২০২৩ সালের মে মাসে, লোরাটো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে ওয়ার্ল্ড ফ্যাশন এক্সিবিশন-এ যোগ দিবে রোজা ও তার লরাটো। এই ইভেন্টে ১০০টিরও বেশি দেশ থেকে অংশগ্রহণ করতে আসবেন। একজন একক ফ্যাশন ডিজাইনার প্রতিটি দেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন। লোরাটো প্রথমবারের মতো এই বিশাল আসরে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। তারা নির্দিষ্ট করেছে যে তারা অর্গানিক মেটেরিয়াল দিয়ে তৈরি পোশাক চায়। এই লক্ষে, লোরাটো রেশম সিল্কের একটি গাউন তৈরি করবেন। লোরাটোর সাথে কথোপকথনের সময় এই সিল্কের উৎপাদন প্রক্রিয়া এবং বাংলাদেশে এর বর্তমান অবস্থা বর্ণনা করেছেন। তারা অবাক হয়েছিলেন যখন তারা এই ফ্যাব্রিকটি সম্পর্কে জানতে পেরেছিলেন এবং লোরাটোকে এটি এবং বাংলাদেশ এর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে একটি তথ্যচিত্র তৈরি করতে বলেছিলেন, যাতে ভবিষতে তারা এই শিল্পটিকে এর আগের গৌরব পুনরুদ্ধার করতে সহায়তা করতে পারে।