আজকের দিন তারিখ ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ১০ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা যৌন মিলনের সময়ও মাস্ক পরুন

যৌন মিলনের সময়ও মাস্ক পরুন


পোস্ট করেছেন: Dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: জুন ৫, ২০২০ , ৫:২৫ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা


দিনের শেষে ডেস্ক : যৌন মিলনের সময় মাস্ক পরলে কভিড-১৯ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি কমায়। এক নতুন গবেষণায় এই ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে। ৮ মে বিশ্বখ্যাত হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা অ্যানালস অব ইন্টারন্যাল মেডিসিন জার্নালে একটি গবেষণা প্রকাশ করেন। গবেষণার লক্ষ্য ছিল করোনাভাইরাস মহামারিতে যৌন মিলনে মিলিত হওয়ার নিরাপদতম উপায় খুঁজে বের করা। সেখানেই পরামর্শ দেওয়া হয়েছে যৌন মিলনের সময় মাস্ক পরাটা নিরাপদ। এ খবর দিয়েছে বৃটেনের ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকা। খবরে বলা হয়, ইংল্যান্ডে সম্প্রতি নতুন আইন পাশ হয়েছে, যেখানে স্বামী-স্ত্রী ও যৌন সঙ্গীরা যদি একসঙ্গে না থাকেন, তাহলে ঘরের ভেতর যৌন মিলনে মিলিত হওয়া বা রাত্রিযাপন করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যুক্তরাজ্যজুড়ে বিলি করা সরকারি নির্দেশনাতেও যুগলরা একই ছাদের নিচে একসঙ্গে না থাকলে সেক্স করতে না বলা হয়েছে। ঘরের বাইরে অন্য কারও সাথেও যৌন মিলনে মিলিত হতে বারণ করা হয়েছে। মোটাদাগে একই ধরণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রেও। তবে তা সত্ত্বেও হার্ভার্ডের বিজ্ঞানীরা সেক্সের বিভিন্ন ধরণের দৃশ্যকল্প বিবেচনায় নিয়ে বের করার চেষ্টা করেছেন কীভাবে তা করলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে কম। তবে বলা হয়েছে সবচেয়ে কম ঝুঁকি হলো একেবারেই সেক্স না করা। এতে বলা হয়, ‘এতে সংক্রমণের ঝুঁকি কম। তবে অনেকের জন্যই তা যৌক্তিক নয়।’ দ্বিতীয় কম ঝুঁকিপূর্ণ উপায় হলো স্বমেহন। এরপর তৃতীয় স্থানে আছে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে দূর-যৌনক্রিয়া। এরপরের অবস্থানে আছে একই ঘরে বসবাস করা কারও সঙ্গে যৌনক্রিয়া করলে। তবে গবেষণায় বলা হয়, এতে ঝুঁকি অনেক, কেননা যুগলদের একজন যদি ঘরের বাইরে থেকে ভাইরাস নিয়ে আসেন, তাহলে আরেকজনও আক্রান্ত হতে পারেন। আর সর্বশেষ দৃশ্যকল্প, যেটি সবচেয়ে বেশি ঝুকিপূর্ণ, তা হলো ঘরের বাইরের কারও সাথে সেক্স করা। একান্তই এসব পরিস্থিতিতে পড়লে ঝুঁকি কমানোর দিকে মনোযোগী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সেক্ষেত্রে যৌনসঙ্গীর সংখ্যা কমানো, কভিড-১৯ রোগের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ কারও সঙ্গে যৌনক্রিয়া না করা, যথাসম্ভব চুমু বা অন্য ধরণের দৈহিক সংস্পর্শ কম করা, মাস্ক পরা, যৌনক্রিয়ার আগে ও পরে গোসল করা এবং যেখানে যৌনক্রিয়া করা হয়েছে, সেই স্থানটি সাবান বা অ্যালকোহল দিয়ে মুছে ফেলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। প্রধান গবেষক ড. জ্যাক টারবান বলেন, ‘কিছু রোগীর জন্য সরাসরি যৌনক্রিয়া থেকে বিরত থাকা অর্জনযোগ্য লক্ষ্য নয়। সেইক্ষেত্রে এমন কারও সঙ্গেই সেক্স করা সবচেয়ে নিরাপদ, যার সঙ্গে ওই ব্যক্তি কোয়ারেন্টিন অতিবাহিত করছেন।’