আজকের দিন তারিখ ৮ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সারাদেশ নাসিরনগরে চার্জশিটভুক্ত আসামিরা পেলেন মনোনয়ন

নাসিরনগরে চার্জশিটভুক্ত আসামিরা পেলেন মনোনয়ন


পোস্ট করেছেন: Dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১৪, ২০২১ , ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: সারাদেশ


ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে তেলেসমাতি কাণ্ড হয়েছে। সহিংসতা মামলার চার্জশিটভুক্ত দুই আসামি দেওয়ান আতিকুর রহমান আঁখি ও আবুল হাসেম পেয়েছেন দলের মনোনয়ন। এরমধ্যে আবুল হাসেম নাসিরনগর সদর এবং আঁখি হরিপুর ইউনিয়নে মনোনয়ন পেয়েছেন। এই দু’জন নাসিরনগর উপজেলা সদরের গৌরমন্দির ভাঙচুর মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি। আগামী ১১ই নভেম্বর এই উপজেলার ১৩ ইউনিয়নে নির্বাচন। ১৭ই অক্টোবর মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন। চার্জশিটভুক্ত আসামিদের মনোনয়ন দেয়ার বিষয়টি নিয়ে নাসিরনগর উপজেলাজুড়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। এছাড়া মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামিরা দলীয় মনোনয়ন পাওয়ায় অস্বস্তিতে পড়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা।
এর আগে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রার্থী চূড়ান্ত করার পর গত ১২ই অক্টোবর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থীদের নাম তালিকা প্রকাশ করা হয়। তালিকায় হিন্দুপল্লীতে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ মামলার দুই আসামির নাম থাকায় বিস্ময়ের সৃষ্টি হয়। আবুল হাসেম ও আতিকুর রহমান আঁখি যে সহিংসতা মামলার আসামি সেটি মনোনয়ন বোর্ডের কাছে গোপন করা হয়েছে বলে দলের দায়িত্বশীল নেতাদের ধারণা। এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার বলেন, ‘আমরা জেলা বাছাই কমিটি থেকে তাদের ব্যাপারে আপত্তি দিয়েছিলাম। এরপরও এটি হয়েছে। মনে হয় তাদের মামলার বিষয়টি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় উত্থাপিত হয়নি অথবা কেউ গোপন করেছে। কেন্দ্রের দৃষ্টিতে গেলে হয়তো এটি পরিবর্তন হবে।’ উল্লেখ্য, ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম অবমাননাকর একটি পোস্টের জেরে ২০১৬ সালের ৩০শে অক্টোবর নাসিরনগর উপজেলা সদরে হিন্দুপল্লীতে হামলা চালিয়ে মন্দির ও ঘরবাড়ি ভাঙচুর এবং লুটপাট করে দুষ্কৃতকারীরা। পরবর্তীতে দুই দফায় হিন্দুদের কয়েকটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে দুর্বৃত্তরা। এসব ঘটনায় দায়ের করা মোট ৮টি মামলায় দুই হাজারেরও বেশি মানুষকে আসামি করা হয়। এর মধ্যে ২০১৭ সালের ১১ই ডিসেম্বর গৌরমন্দির ভাঙচুর মামলায় নাসিরনগর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসেম ও হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেওয়ান আতিকুর রহমান আঁখিসহ ২২৮ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) জমা দেয় পুলিশ।