আজকের দিন তারিখ ২৬ অক্টোবর, ২০২০, সোমবার, ১০ কার্তিক, ১৪২৭
সর্বশেষ সংবাদ
রাজনীতি ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদণ্ডে আনন্দিত ছাত্রলীগ

ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদণ্ডে আনন্দিত ছাত্রলীগ


পোস্ট করেছেন: dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১৪, ২০২০ , ১২:৪২ অপরাহ্ণ | বিভাগ: রাজনীতি


দিনের শেষে ডেস্ক :  ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে ‘নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০’ সংশোধন করায় আনন্দ মিছিল করেছে ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্বদ্যালয় এলাকায় আনন্দ মিছিল করে সংগঠনটি। মিছিলটি দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন জায়গা প্রদক্ষিণ করে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যে এসে শেষ হয়। এসময় ছাত্রলীগ সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যসহ সংগঠনটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী কর্মসূচিটিতে অংশ নেন।

ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে মঙ্গলবার অধ্যাদেশ জারি করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। অধ্যাদেশ জারির মাধ্যমে আজ থেকেই এটি আইনে পরিণত হলো। আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানিয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় বলেন, ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান এনে গতকাল একটি আইনের সংশোধনের প্রস্তাব পাস হয়েছে মন্ত্রিসভায়। আমরা কৃতজ্ঞ, আমরা ধন্যবাদ জানাই, আমাদের যে অনুরোধ ছিল প্রাণপ্রিয় নেত্রীর কাছে, তিনি তা রেখেছেন। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পরিবার দেশরত্ন শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞ।

তিনি বলেন, ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান করার জন্য সবার আগে মাঠে নামে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। কিন্তু কিছু অসৎ নামসর্বস্ব ব্যক্তি, নামসর্বস্ব সংগঠন, ধর্ষকদের যারা সব সময় সাপোর্ট দেয়, তারা মিথ্যা বলে যে সিমপ্যাথি নেয়ার চেষ্টা করেছে, সেটা কিন্তু সবাই জেনেছে যে এই নাটকবাজদের এজেন্ডা পাকিস্তানের এজেন্ডা। সুতরাং এই পাকিস্তানিদের কোনোভাবে বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করার সুযোগ দেব না। জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সব সময় পরিশ্রম করে যাবে, তার হাত ধরে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, জনগণের আবেদনে সাড়া দিয়ে আমাদের প্রধানমন্ত্রী এরই মধ্যে গতকালের মন্ত্রিসভায় ২০০০ সালের যে নারী নির্যাতন আইন ছিল, সে আইনের খসড়া সংশোধন করে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড থেকে বাড়িয়ে মৃত্যুদণ্ড হিসেবে মন্ত্রিসভায় অনুমোদন করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে আজকের এই কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। বিকেল ৩টায় সারা দেশে আমাদের সব ইউনিট এ কর্মসূচি পালন করবে।