আজকের দিন তারিখ ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অর্থ ও বাণিজ্য ওষুধ খাতের কোম্পানির জন্য সুসংবাদ

ওষুধ খাতের কোম্পানির জন্য সুসংবাদ


পোস্ট করেছেন: Dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২৬, ২০২১ , ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: অর্থ ও বাণিজ্য


দিনের শেষে প্রতিবেদক : ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানির ওষুধ তৈরির কাঁচামাল ও ল্যাবরেটরি স্থাপনে কর অবকাশ সুবিধা দিতে যাচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। খাতটির দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে এ সুবিধা দেওয়ার কথা বিবেচনা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। এনবিআরের ঊর্ধ্বতন একটি সূত্র জানায়, সম্প্রতি এনবিআরের আয়কর শাখা ন্যাশনাল অ্যাকটিভ ফার্মাসিউটিক্যাল ইনগ্রেডিয়েন্ট (এপিআই) নীতিমালা প্রণয়নসহ বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। সাধারণত ১০ থেকে ২০ বছরের জন্য এই ধরনের কর অবকাশ সুবিধা দেওয়া হয়। এপিআই হলো সব ধরনের ওষুধ তৈরির জন্য প্রাথমিক কাঁচামাল। এনবিআর কর্মকর্তারা বলছেন, প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করার পর এ সংক্রান্ত এসআরও জারি করা হবে। শিল্প উদ্যোক্তারা দীর্ঘদিন ধরে এ দাবি করে আসছিলেন। তারা ২০৩২ সাল পর্যন্ত এ সুবিধা দাবি করেছেন। এর আওতায় ওষুধ শিল্পের কাঁচামাল উৎপাদনকারীরা শতভাগ করপোরেট কর মওকুফসহ অন্যান্য কর সুবিধা ভোগ করবেন। শিল্পের উদ্যোক্তারা বলছেন, সরকারের কাছ থেকে রাজস্ব নীতির সহায়তা পেলে রফতানি প্রতিস্থাপন এবং রফতানি উভয় ক্ষেত্রেই এপিআইয়ের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে।
উল্লেখ্য, বর্তমানে ৯৮ শতাংশ অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণ করে থাকে দেশের ওষুধশিল্প। আর বাংলাদেশের ওষুধ ১৬০টিরও বেশি দেশে রফতানি করা হচ্ছে। যদিও স্থানীয় ওষুধ উৎপাদনকারীদের ভারত, চীন এবং কোরিয়ার মতো দেশ থেকে ৯০ শতাংশ কাঁচামাল আমদানি করতে হয়। এপিআই নীতিমালা অনুসারে সরকার প্রয়োজনীয় ৩৭০টি গুরুত্বপূর্ণ কাঁচামালে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে।