আজকের দিন তারিখ ১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ২রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
স্পোর্টস আইপিএল : শেষ ওভারের রোমাঞ্চে ফাইনালে ধোনির চেন্নাই

আইপিএল : শেষ ওভারের রোমাঞ্চে ফাইনালে ধোনির চেন্নাই


পোস্ট করেছেন: Dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১১, ২০২১ , ১১:১০ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: স্পোর্টস


দিনের শেষে ডেস্ক : ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) ফাইনাল খেলাটা ‘রুটিন’ বানিয়ে ফেলেছে চেন্নাই সুপার কিংস। সবচেয়ে বেশিবার শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে ওঠার রেকর্ড আগেই ছিল তাদের, এবার সংখ্যাটা আরও বাড়িয়ে নিয়েছে সিএকে। রবিবার নবমবার ফাইনালে নাম লেখালো মহেন্দ্র সিং ধোনিরা। সব মিলিয়ে আইপিএলে খেলা ১২ মৌসুমের ৯বারই ফাইনালে উঠেছে তারা! রবিবার প্রথম কোয়ালিফায়ারে দিল্লি ক্যাপিটালসকে ৪ উইকেটে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ধোনির চেন্নাই। আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে দিল্লি করে ১৭২ রান। কঠিন লক্ষ্যে খেলতে নেমে শেষ ওভারের রোমাঞ্চে জয় নিশ্চিত করেছে চেন্নাই। শেষ ওভারে ১৩ রানের প্রয়োজন হলে অভিজ্ঞ ধোনির ঠাণ্ডা মাথার ইনিংসে ২ বল হাতে রেখে ৬ উইকেট হারিয়ে জয় পায় চেন্নাই। আগামী ১৫ অক্টোবর ফাইনালে ধোনিদের প্রতিপক্ষ এখনও নির্ধারণ হয়নি। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দিল্লির দেওয়া ১৭৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই ফিরে যান ফাফ ডু প্লেসিস। চেন্নাইয়ের ওপেনার রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও রবিন উথাপ্পা মিলে ১১০ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন। উথাপ্পা ৪৪ বলে ৬৩ রানে আউট হওয়ার পর দ্রুত বেশ কয়েকটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় চেন্নাই। ১৯তম ওভারে দারুণ খেলতে থাকা গায়কোয়াড় আউট হলে চেন্নাইয়ের চাপ আরও বাড়ে। এই ওপেনার ৫০ বলে ৭০ রান করে আবেশ খানের বলে আউট হন।
গায়কোয়াড়েরর আউটের পর চেন্নাইয়ের জিততে প্রয়োজন ছিল ১১ বলে ২৪। কঠিন লক্ষ্যে খেলতে গিয়ে ধোনি দেখালেন নিজের কারিশমা। আবেশ খানকে এক ছক্কা এবং টম কারেনকে তিন চার মেরে ২ বল হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন তিনি। ৬ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ধোনি অপরাজিত থাকেন ১৮ রানে। দিল্লির বোলারদের মধ্যে টম কারেন ২৯ রান খরচায় সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নিয়েছেন।
এর আগে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন চেন্নাই অধিনায়ক ধোনি। শিখর ধাওয়ান (৭), শ্রেয়াস আইয়ার (২) ও অক্ষর প্যাটেল (১০) দ্রুত ফিরে গেলেও নিজের প্রান্তে আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন ওপেনার পৃথ্বি শ। দ্রুততার সঙ্গে স্কোরবোর্ডে রান তোলেন এই ব্যাটার। চতুর্থ উইকেট হিসেবে সাজঘরে ফেরেন পৃথ্বি। আউট হওয়ার আগে ৩৪ বলে ৭ চার ও ৩ ছক্কায় ৬০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিনি। এছাড়া ঋষভ পান্তের অপরাজিত ৩৫ বলে ৫১ ও শিমরন হেটমায়ারের ২৪ বলে ৩৭ রান দলের স্কোরকে ১৭২ রানে নিয়ে যেতে ভূমিকা রেখেছে। চেন্নাইয়ের জশ হ্যাজেলউড সর্বোচ্চ ২ উইকেট নিয়েছেন।