আজকের দিন তারিখ ২১শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
জাতীয় অনশনরত ১৬ শাবি শিক্ষার্থী হাসপাতালে, তিন জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

অনশনরত ১৬ শাবি শিক্ষার্থী হাসপাতালে, তিন জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক


পোস্ট করেছেন: dinersheshey | প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ২২, ২০২২ , ৫:০৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: জাতীয়


দিনের শেষে ডেস্ক :  শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আমরণ অনশন করছেন ২৪ শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ১৬ জন অসুস্থ হয়ে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। অসুস্থ তিন শিক্ষার্থীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। শনিবার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে অনশনস্থলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মো. মুস্তাকিম জানান, অসুস্থ ১৭ শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে পাঠানো করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে একজন হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে পরে অনশনস্থলে ফিরেছেন। অসুস্থদের মধ্যে ৯ জন ছাত্রী। তিনি আরও জানান, অনশনের প্রায় তিন দিন পেরিয়ে গেছে। শিক্ষার্থীদের গ্লুকোজ লেবেল কমে গেছে। এ জন্য স্যালাইন ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।

ডা. মুস্তাকিম জানান, শিক্ষার্থীদের প্রোটিন লেবেলও কমতে শুরু করেছে। একজন মানুষকে প্রতিদিন একটা নির্দিষ্ট মাত্রায় প্রোটিন ও ফ্যাটের প্র‍য়োজন হয়। অনশনরত শিক্ষার্থীদের এগুলোর ঘাটতি হচ্ছে। শিগগিরই শিক্ষার্থীদের মধ্যে কয়েকজন গুরুতর অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিন শিক্ষার্থীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান তিনি। এদিকে শাবিপ্রবির বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে আলোচনা করতে ঢাকায় অবস্থান করছেন পাঁচ শিক্ষকের একটি প্রতিনিধি দল। শুক্রবার রাতে শাবিপ্রবির শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুলসী কুমার দাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শিক্ষামন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিলেও ঢাকায় গিয়ে আলোচনায় বসা সম্ভব না বলে জানিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। অনশনরত শিক্ষার্থীরা অসুস্থ হয়ে পড়ায় তারা ঢাকায় আসতে পারবেন না বলে জানান।

এর আগে, শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৩টায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলের মাধ্যমে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ফোনে কথা বলে আলোচনায় বসার আহ্বান জানান শিক্ষামন্ত্রী। এতে সম্মতিও জানিয়েছেন আন্দোলনরতরা। তবে ভার্চুয়ালি কিংবা সরাসরি শিক্ষামন্ত্রীর ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আলোচনায় বসার প্রস্তাব দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।